মৎস্য আহরণে জেলেদের সমুদ্রে যাত্রা

নিজস্ব প্রতিনিধি :
বঙ্গোপসাগর তীরে সুন্দরবনের দুবলার চরে মৎস্য আহরণ ও শুটকি প্রক্রিয়াকরণ মৌসুমকে সামনে রেখে জেলেরা সমুদ্র যাত্রা শুরু করেছেন। ইলিশ আহরণ ও সুন্দরবনে সব ধরণের মাছ ধরার নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পরদিন সোমবার সকাল থেকেই হাজার হাজার জেলে ঝড়-জলোচ্ছাসের আশংকা মাথায় নিয়েই মোংলার পশুর নদীর চিলা খালের মোহনা হতে জাল-নৌকা ও শুটকি তৈরির উপকরন নিয়ে সাগর পাড়ের দূর্গম চরাঞ্চল ও সমুদ্রের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেন। এবছর ১ নভেম্বর থেকে সুন্দরবনের দুবলার চরে শুটকি আহরণ মৌসুম শুরু হবে ।
সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের ডিএফও মাহমুদুল হাসান বলেন, বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের দুবলায় এবারের শুটকি আহরণনে দুই কোটি টাকার রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করেছেন বন বিভাগ। জেলেদের জন্য এবার দুবলার চরে ১ হাজার ২৫টি জেলে ঘর ও জেলেদেও মহাজনদের জন্য ৪৮টি ডিপো ঘরের অনুমোদন দিয়েছে সুন্দরবন বিভাগ। প্রতিটি ঘর ২৮ ফুট দৈর্ঘ্য এবং ১২ ফুট প্রস্থ নির্ধারণ করে ঘরের মাপও ঠিক করে দেয়া হয়েছে। প্রতি বছর অক্টোবরের শেষ থেকে মার্চ মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত চলে সুন্দরবনের দুবলার চরের এ শুটকি মৌসুম।