বাগেরহাটে ১১ তম সিডর দিবস পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বাগেরহাটের শরনখোলায় ১১ তম সিডর দিবস পালিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার গাবতলা কারীমিয়া মাদ্রাসায় খতমে কুরআন ও দোয়া-মাহফিলের মধ্যদিয়ে দিবসটি পালিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, চরমোনাই পীরের খলিফা প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল মজিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন মাওলানা এইচএম সাইফুল ইসলাম, ও মাওলানা সুলতানুল আরেফিন সিদ্দিকী। দোয়ানুষ্ঠানে ভাঙ্গন কবলিত সাউথখালীর সোনাতলা ও বগী মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা সহ স্থানীয়রা অংশ নেয়। পরে স্থানীয়দের মাঝে তবারক হিসেবে পায়েস বিতরন করা হয়।
এর আগে প্রধান অতিথির নেতৃত্বে একটি মাদ্রাসা শিক্ষক দল নদী ভাঙ্গন রোধে ট্রলারে করে নদীর মধ্যে বিভিন্ন পয়েন্ট মাটির ঢেলা ফেলে প্রার্থণা করেণ। যাতে ভবিষ্যতে আর নদী ভাঙ্গন না হয়।
উল্লেখ্য ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর আজকের এই দিনে প্রলয়ংকরি ঘুর্নিঝড় সিডর উপকুলীয় শরনখোলায় আঘাত হানে। আঘাতে মুহূর্তেই লন্ড-ভন্ড হয়ে যায় ৩৫/১ পোল্ডারের শরনখোলা বগী এলাকার বেড়ি বাধ। ৮০৯ জন মানুষ প্রাণ হারায়। হাজার হাজার গবাদি পশু মারা যায়, বাড়ি ঘর, মাঠের ফসল যায় ভেসে। সরকারী বে-সরকারী সাহায্য সংস্থার সহায়তায় বিধ্বস্ত মানুষেরা ঘুরে দাড়ানোর চেস্টা করছে। কিন্তু তাদের প্রানের দাবী টেকসই বেরীবাধ আজও নির্মিত হয়নি। এখন তাদের একমাত্র দাবী নদী শাসন করে বেড়ি বাধ নির্মান করতে হবে।