পাওনা টাকা আদায়ে বৃদ্ধকে শিকলে বেধে নির্যাতন করলেন আ,লীগ নেতা

শরণখোলা প্রতিনিধি

বাগেরহাটের শরণখোলায় পাওনা টাকা আদায় করতে মোঃ ইসমাইল খান (৬০) নামের এক বৃদ্ধের পায়ে শিকল বেধে নির্যাতন করেছে পাওনাদার আ,লীগ নেতা। রবিবার (৫ মে) দুপুরে ধানসাগর ইউনিয়নের ৪ নং খাদা ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ কামাল হোসেন বয়াতী পাওনা টাকা আদায় করতে উপজেলার বাংলাবাজার এলাকায় ডেকে এনে ইসমাইলকে মারধর করে পায়ে শিকল দিয়ে বেধে বাড়িতে আটকিয়ে রাখে। পরে সোমবার (৬মে) বিকেলে পুলিশের অভিযান টের পেয়ে ইসমাইলকে ছেড়ে গা ঢাকা দিয়েছে কামাল বয়াতি।

ইসমাইল উপজেলার দক্ষিণ রাজাপুর গ্রামের মৃতঃ গনি খানের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, মোঃ কামাল হোসেন বয়াতীর সাথে কাঠের ব্যবসা করতেন ইসমাইল খান। এক পর্যায়ে ইসমাইলের কাছে ২০ হাজার টাকা পাওনা হয় মোঃ কামাল হোসেন বয়াতীর। পাওনা টাকা আদায়ে ইসমাইলকে ডেকে এনে কামাল ও তার সহযোগিরা মারধর করে শিকলে বেধে রাখে।

ইসমাইল বলেন, পাওনা টাকার ৭ হাজার পরিশোধ করলেও আমাকে এপর্যন্ত মুক্তি দেয়নি । আমার কাছ থেকে জোর করে সাদা কাগজে একাধিক স্বাক্ষর নিয়েছে ।

কামাল বয়াতী বলেন , চার-পাঁচ বছর পূর্বে ইসমাইল আমার কাছ থেকে টাকা নেয়। টাকা না দেয়ায় আমি তাকে শিকল দিয়ে বেধেছিলাম। পরে আবার ছেড়ে দিয়েছি।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলীপ কুমার সরকার বলেন, পুলিশের অভিযান টের পেয়ে কামাল বয়াতি ও তার লোকজন ইসমাইলকে ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। আমরা ইসমাইলের কাছে সব কিছু শুনছি। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

নির্যাতনের ভিডিও দেখ নিচের লিংকে ক্লিক করুণ