বাগেরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় ছেলে হারিয়ে পাগল প্রায় বাবা

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে বাসের চাপায় নসিমনে থাকা মেধাবী শিক্ষার্থী কামাল শেখসহ ৪জন নিহতের ঘটনায় মামলা হলেও ৬ মাসে চার্জশীট দিতে পারেনি পুলিশ। এঘটনায় পুত্র শোকে প্রায় পাগল হয়ে বিচারের দাবিতে দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন  ওই শিক্ষার্থীর পিতা বাদশা শেখ।

বাদশা শেখ জানান, ২০১৮ সালের ৮ নভেম্বর গোপালগঞ্জ সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের ¯œাতক (সম্মান) শ্রেণির তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আমার পুত্র কামাল শেখ আর্থিক অনটনের কারণে ইমারত শ্রমিকের কাজ শেষে বাড়ি ফিরছিল। নছিমনে ফেরার পথে বোয়ালিয়া এলাকায় বেপরোয়া গতির বাসের চাপায় আহত হয় কামাল। এসময় ওই নছিমনে থাকা আরও তিন শ্রমিক ঘটনা স্থলে মারা যায়। আহত কামালকে উদ্ধার করে প্রথমে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখা একমাস চিকিৎসা শেষে মারা যায় কামাল। মারা যাওয়ার সাথে সাথে চিকিৎসা খরচে সর্বশান্ত করে দিয়ে যায় বাবা বাদশা শেখকে।

তিনি আরও জানান, কাটাখালি হাইওয়ে থানায় মামলা হলেও আজ পর্যন্ত গাড়িচাপা দিয়ে হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে চার্জশীট দিতে পারেনি পুলিশ। একমাস ধরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছেলেকে চিকিৎসা করাতে গিয়ে নিজের সহায় সম্বল হারিয়েছি। ধার ও সুদেও টাকা নিয়েছি মানুষের কাছ থেকে। কিন্তু বিচার পাইনি আমি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাটাখালি হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক মলয়েন্দ্র নাথ রায় বলেন, মামলা তদন্ত শেষে আসামীদের বিরুদ্ধে চার্জশীট দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।