‘বৈষম্য থেকে বেরিয়ে আসতে হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক.বৈষম্য নিয়ে সামাজিক গনমাধ্যমে মো. শহিদুল ইসলাম একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সেই স্ট্যাটাসটি আমরা হুবাহু তুলে ধরেছি।’আমরা দুই বোন এক ভাই । মা ভাইয়াকে বেশী আদর করেন্ ।ওর জন্য আলাদা খাবার রাখেন। যা আমরা ধরতেও পারি না’ । এভাবেই বৈষম্যের বাস্তব ভিত্তিক দৃস্টান্তগুলো বলছিলেন-প্রেমা।বাংলাদেশের সর্বদক্ষিনে অবস্থিত দাকোপ উপজেলার বাজুয়া ইউনিয়নের এক দরিদ্র পরিবারের মেয়ে প্রেমা। শিশু শ্রম প্রতিরোধে ’ রাইট-বেইজড এপ্রোচে শিশুদের অধিকার নিয়ে ‘ এইচ আরপি-ইউএনডিপি-বাংলাদেশের‘ সহায়তায় কাজ করি। এরই অংশ হিসাবে স্কুল ড্রপ-আউট,চিংড়ী পোনা আহরন,বাজারের দোকানে দোকানে কলসী ভরে পানি সরবরাহ সহ বেশ কিছু শিশু শ্রমে নিয়োজিত এসব শিশুদের নিয়ে সংগঠিত সিবিওর আওতায় আজ উদযাপিত হলো- ’ আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০২০’। প্রেমাকে জিঞ্জাসা করেছিলাম- তোমার কি মনে হয়? -এই বেশী আদর কেন? সংগে সংগে বলল ‘ওতো কামাই করে সংসার চালাবে।’ এরপর স্বপ্নের ভুবনে নতুন ভাবনা সৃস্টিতে আমাদের কর্ম সুচী মোতাবেক কার্য ক্রম শুরু করি। শেষের শ্লোগান ছিল-’আমরা এমন এক নতুন প্রজন্ম চাই-যেখানে নারী-পুরুষ কোন বৈষম্য নাই”। আমরা সমতায় বিশ্বাসী- আপনিও কি তাই? এ প্রশ্নটাই আমি ফেইসবুক বন্ধুদের কাছে তুলে ধরলাম।