বাগেরহাটে এমপি তন্ময়ের নির্দেশে ধান কেটে দিচ্ছেন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক. বাগেরহাট ২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়ের নির্দেশে স্বেচ্ছাশ্রমে গরীব, হত দরিদ্র ও বর্গা চাষীদের পাকা ধান কেটে দিচ্ছেন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) সকালে একযোগে বাগেরহাট সদর উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নে কৃষকের পাকা ধান কাটার মাধ্যমে এই কর্মসূচি শুরু হয়। “যতক্ষন না কৃষকের ধান ঘরে উঠবে না ততক্ষন পর্যন্ত ছাত্রলীগ তাদের পাশে থাকবে” এই প্রত্যয় নিয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মাঠে নেমেছে। এদিকে দেশের এই সংকটের সময় বিনা পারিশ্রমিকে স্বেচ্ছাশ্রমে এভাবে ধান কেটে দেওয়ায় খুশি এলাকাবাসী ও কৃষকরা।

কৃষক নজরুল শেখ ও এনামুল কবির বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে অনেক কষ্টের ধান পেকে গেছে। একদিকে কাল বৈশাখির ছোবলের ভয়, অন্যদিকে জমিতে লবন পানি উঠা শুরু করেছে। সেই মুহুর্তে ধান কাটার শ্রমিক না পেয়ে আমরা চিন্তিত ছিলাম। ছাত্রলীগের নেতাকমীরা ধান কেটে দেওয়ার কথা বলেন। সকালে এসেই ধান কাটা শুরু করেন। আমরা খুবই আনন্দিত। এভাবে সকল শ্রেণির মানুষকে এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানান কৃষকরা।

বাগেরহাট সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল হাসান সাদ্দাম বলেন, বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময় ভাইয়ের নির্দেশনা ও জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মনির হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক নাহিয়ান আল সুলতান ওশান অনু প্রেরণায় আমরা একযোগে বাগেরহাট সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ধান কাটার উদ্যোগ নিয়েছি। উপজেলা ছাত্রলীগের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধান কাটার জন্য সহযোগিতা চেয়ে বার্তা দেওয়া হয়। সে কারণে অনেক কৃষকের ফোন পেয়েছি। বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলার পুটিমারী মৌজার কয়েকজন কৃষকের ধান কাটা শুরু করি। এছাড়া প্রত্যেক ইউনিয়নে ২০ জন করে ছাত্র লীগের কর্মীরা ধান কাটা শুরু করেছে। সকল কৃষকের ধান ঘরে না ওঠা পর্যন্ত আমাদের এই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলে জানান এই ছাত্র নেতা।

বাগেরহাট জেলায় এবছর ৫২ হাজার ৯৩০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হয়েছে। যার লক্ষ্যমাত্রা ২ লাখ ৪৩ হাজার মেট্রিকটন ধান।