মোল্লাহাটে স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কেটে দিলেন শেখ তন্ময় ইয়ংষ্টার ক্লাবের সদস্যরা

মোল্লাহাট প্রতিনিধি. করোনা পরিস্থিতিতে বাগেরহাটে এবার শেখ তন্ময় ইয়ংষ্টার ক্লাবের সদস্যরা হতদরিদ্র ও বর্গা চাষীদের ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছেন। বুধবার সকালে স্বেচ্ছাশ্রমে বাগেরহাটের মোল্লাহাট উপজেলার সরসপুর গ্রামে কৃষক ইসরাইল খানের ৫ বিঘা জমির ধান কাটা শুরু করেন ক্লাবের সদস্যরা। এদিকে স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কেটে দেওয়ায় খুশি হয়েছেন দরিদ্র কৃষকরা।
কৃষক ইসরাইল খা বলেন, বৃষ্টির মধ্যে ধান কেটে ঘরে তোলা নিয়ে শঙ্কায় ছিলাম। ক্লাবের ভাইরা এসে আমার ধান কেটে দিলেন। আমি খুব খুশি হয়েছি।
স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কাটার খবর পেয়ে স্বেচ্ছাসেবকদের উৎসাহ দিতে মাঠে আসেন মোল্লাহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাফফারা তাসনীম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবুল হোসেন ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আকাশসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। তারা ধান কাটায় অংশ নেয়া ক্লাবের সদস্যদের ধন্যবাদ জানান।
মাল্লাহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাফফারা তাসনীম বলেন, করোনা পরিস্থিতি ও অতিবৃষ্টির ফলে উপজেলায় ধানকাটার জন্য শ্রমিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে অনেক সংগঠন বিনামূল্যে ধান কেটে কৃষকদের পাশে দাড়িয়েছে। শেখ তন্ময় ইয়ংষ্টার ক্লাবের সদস্যরাও কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে এ জন্য আমি তাদেরকে উপজেলা প্রশাসণের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই।
শেখ তন্ময় ইয়ংষ্টার ক্লাবের সভাপতি মোঃ সোহরাব হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক শেখ জুয়েল বলেন, করোনা পরিস্থিতি ও অতিবৃষ্টির মধ্যে ধান নিয়ে যখন বিপাকে তখন আমরা ৩০ জন্য সদস্য প্রতিদিন ধান কেটে দেওয়ার সিন্ধান্ত নেই। যতদিন জমিতে ধান থাকবে ততদিন আমরা কৃষকের ধান কেটে দেব। এর আগেও আমরা কয়েকদিন কৃষকদের ধান কেটে দিয়েছি।
মোল্লাহাট উপজেলায় ৮৩২০ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের চাষ হয়েছে। যার উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ৩৯ হাজার মেট্রিকটন।