চিতলমারীতে ৩৯ কচ্ছপসহ দুই বিক্রেতা আটক, অতপর জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক. বাগেরহাটের চিতলমারীতে আহরণ ও বিক্রয় নিষিদ্ধ ৩৯টি কচ্ছপসহ দুই ব্যবসায়ীকে আটক করেছে বন্য প্রাণী ব্যাবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ, খুলনা।বুধবার বিকেলে প্রাণী ব্যাবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের পরিদর্শক রাজু আহমেদের নেতৃত্বে সাত সদস্যের একটি টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চিতলমারী উপজেলা সদরের হাটে কচ্ছপ বিক্রয়কালে হাতে নাতে আটক করে।পরে আটক ব্যবসায়ীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমান আদালত। পরে উদ্ধারকৃত কচ্ছপগুলোকে মধুমতি নদীসহ বিভিন্ন জলাশয়ে অবমুক্ত করা হয়।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, চিতলমারী উপজেলার দড়ি উমাজুরি গ্রামে নলিণ হীরার ছেলে বকুল হীরা(৫০)এবং খাসেরহাট গ্রামের হরিবর হালদারের ছেলে সুভাষ হালদার (৬৫)।আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে  কচ্ছপ আহরণ ও ক্রয় বিক্রয় করে আসছিল।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক  মারুফুল আলম বলেন, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন ২০১২ অনুযায়ী কচ্ছপ আহরণ ও বিক্রয় নিষিদ্ধ করা হয়েছে।তারপরও অসাধু কিছু লোক কচ্ছপ আহরণ করে বাজারে বিক্রি করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে প্রাণী ব্যাবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের সদস্যরা ৩৯টি কচ্ছপসহ দুইজনকে আটক করে। পরে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ১০ টাকা জরিমানা ও সতর্ক করে তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। উদ্ধার কচ্ছপগুলোকে মধুমতি নদীসহ বিভিন্ন জলাশয়ে অবমুক্ত করা হয়েছে। আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান ইউএনও।