চিতলমারীতে অগ্নিকান্ডে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভষ্মিভূত, অর্ধকোটি টাকার ক্ষতি

নিজস্ব প্রতিবেদক. বাগেরহাটের চিতলমারীতে অগ্নিকান্ডে ৪টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভষ্মিভূত হয়েছে। এ সময় আগুনে পুঁড়ে নগদ টাকা, মালামাল ও স্বর্ণালঙ্কারসহ প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। সোমবার দিবাগত রাত ২ টার দিকে উপজেলার খাসেরহাট বাজারে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসি, বাগেরহাট ও টুঙ্গিপাড়া ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট আড়াই ঘন্টা ধরে চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। রাতেই চিতলমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অশোক কুমার বড়াল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মারুফুল আলম, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর শরিফুল হক ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক পীযূষ কান্তি রায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার দিবাগত রাত ২ টার দিকে উপজেলার চরবানিয়ারী ইউনিয়নের খাসেরহাট বাজারে দুলাল মন্ডলের কাঁচামালের দোকানে আগুনের সূত্রপাত হয়। এরপর মুহুর্তের মধ্যে বিকাশ মজুমদারের গামছা-লুঙ্গি, শেফালী মন্ডলের টেইলার্স ও বিকাশ বড়ালের সার কীটনাশকের দোকানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় আগুনে পুঁড়ে নগদ টাকা, মালামাল ও স্বর্ণালঙ্কারসহ প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। সেই সাথে অগ্নিকান্ডে ৪টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভষ্মিভূত হয়েছে।

আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী বিকাশ বড়াল ও শেফালী মন্ডল জানান, তাদের দলিল, ভোটার আইডি কার্ড ও মূলবান কাগজপত্র, নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও মালামালসহ সব কিছু পুঁড়ে ছাঁই হয়ে গেছে। এখন তারা নিস্ব।

স্থানীয় ইউপি সদস্য পলাশ মন্ডল ও বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, এলাকাবাসি, বাগেরহাট ও টুঙ্গিপাড়া ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট আড়াই ঘন্টা ধরে চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

মঙ্গলবার (১৬ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মারুফুল আলম বলেন, রাতেই খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আগুনে পুঁড়ে প্রায় ৫০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আজই ক্ষতিগ্রস্থদের সরকারি ভাবে সাহায্যে করা হবে।