মেট্রোরেলের ৬ বগী পৌছেছে মোংলা বন্দরে, খালাস শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক. রাজধানীবাসির স্বপ্নের মেট্রোরেলের ৬টি বগী নিয়ে প্রথম চালান মোংলা বন্দরে এসে পৌছেছে। বুধবার (৩১ মার্চ) সন্ধ্যায় বন্দরের মোংলা বন্দরের ৭ নম্বর ইয়ার্ড থেকে আমদানীকৃত বগীগুলো খালাস শুরু হয়েছে।এর আগে বিকেল চারটায় বগীগুলো নিয়ে মোংলা বন্দরে পৌছায় জাপান থেকে ছেড়ে আসা এমভি এসপিএম ব্যাংকক।এসময়, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসাসহ বন্দরের উর্দ্ধোতন কর্মকর্তা ও মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

বিদেশী জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনসিয়েন্ট ষ্টিমশীপ কোম্পানী লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, বুধবার (৩১ মার্চ) বিকালে  জাপান থেকে মেট্রোরেলের ৬টি রেলওয়ে কারের (কোচ) প্রথম চালান মোংলা বন্দরে পৌছায়। বন্দরের ৭ নম্বর ইয়ার্ডে খালাস শেষে আমদানীকৃত এব মেট্রোরলের বগি পাঠানো হবে ঢাকায়। জাপানের কাওয়াসাকী হ্যাভী ইন্ডাস্ট্রি কোম্পানী লিমিটেড তৈরি মেট্রোরেলের রেলওয়ে কারগুলো ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানী লিমিটেড (ডিএমটিসিএল) এর কন্ট্রাক্ট প্যাকেজ-০৮ এর আওতায় আমদানি করা হয়েছে। ২০২১-২০২২ সালের মধ্যে এই প্যাকেজের আরও ১৩৮ টি রেলওয়ে কার মোংলা বন্দর দিয়ে আমদানী, ছাড়করণ ও পরিবহণ করা হবে।

ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানী লিমিটেডের কন্ট্রাক্ট প্যাকেজ-০৮ এর প্রকল্প ব্যবস্থাপক এবিএম আরিফুর রহমান বলেন, মেট্রোরেলের লাইন-৬ কন্ট্রাক্ট প্যাকেজ-০৮ আওতায় এর জন্য ২৪টি যাত্রীবাহী রেল কোচ আমদানি করা হবে।প্রতিটি কোচে ৬টি বগী থাকবে। ৬টি বগীর একটি প্যাকেজে ভ্যাট-ট্যাক্সসহ প্রায় একশ কোটি টাকা ব্যয় হবে।আমাদের সব ধরণের প্রস্তুতি রয়েছে। আবহাওয়া ও করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে এখন থেকে প্রতিমাসে একটি করে কোচের জন্য ৬টি বগী মোংলা বন্দরে পৌছাবে।

তিনি আরও বলেন, মোংলা বন্দরে প্রথম চালানে আসা এই ৬টি বগী খালাস শেষে নদী পথে ঢাকার তুরাগ নদীর তীরে অবস্থিত আমাদের নিজস্ব জেটিতে নেওয়া হবে। সেখান থেকে উত্তরায় আমাদের প্রকল্পের নির্ধারিত স্থানে নেওয়া হবে।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, গেল কয়েক বছরে মোংলা বন্দরের সংক্ষমতা কয়েকগুন বৃদ্ধি পেয়েছে। আপনারা দেখেছেন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের চুল্লিসহ মূল্যবান যন্ত্রাংশ মোংলা বন্দর দিয়ে এসেছে।আজকে বাংলাদেশের মানুষের জন্য প্রথমবারের মত নির্মিতব্য মেট্রোরেলের রেলওয়ে কারের প্রথম চালান মোংলা বন্দরে এসে পৌছেছে। আশাকরি ভবিষ্যতে সরকার মোংলাবন্দরের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ মালামাল আনায়ন করবে। মোংলা বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ইনারবার ড্রেজিংসহ অনেক কাজ চলমান রয়েছে। এসব কাজ শেষ হলে বন্দরের সক্ষমতা আরও বৃদ্ধি পাবে বলে দাবি করেন তিনি।