মোল্লাহাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচন : প্রচার-প্রচারনায় এগিয়ে নৌকা প্রতিক

বাগেরহাটে জমে উঠেছে মোল্লাহাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। জেলার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এ উপজেলায় তিনটি পদে ১২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। শেষ মুহুর্তে প্রার্থী ও কর্মীরা রাতদিন ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে । দিচ্ছেন নানারকম প্রতিশ্রুতি। তবে, যে যত প্রতিশ্রুতি প্রদান করুক না কেন, যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিবেন ভোটাররা, এমন আশা সাধারণ মানুষের। উপজেলার শীর্ষ পদটিতে মূল প্রতিদ্বন্দিতাহবে আওয়ামী লীগ মনোনীত বর্তমান চেয়ারম্যান শাহিনুল আলম ছানা এবং স্বতন্ত্র (আ.লীগের বিদ্রোহী) প্রার্থী সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মোতাহার হোসেন মোল্লার সাথে। এ পদে মোঃ কামরুজ্জামান নামে জাতীয় পার্টির এক প্রার্থী থাকলেও তার কোন প্রচার প্রচারণা লক্ষ করা যায়নি। তবে নৌকা ও সতন্ত্র প্রার্থীর প্রতিক আনারসের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত।
শেষ মুহুর্তে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারনা এখন তুঙ্গে। ভোটারদের মন জয় করতে প্রার্থী এবং তাদের কর্মীরাও নানা ভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা প্রচারনায় এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন।
উপজেলার গাওলা গ্রামের রাসেল মোল্লা বলেন, যে প্রার্থীকে ভোট দিলে উপজেলার উন্নয়ন হবে। যে মানুষের পাশে দাড়াবে। আমরা তাকেই ভোট দিব।
গৃহিনী রহিমা খাতুন বলেন, আমরা চাই নারী বান্ধব জনপ্রতিনিধি। তাই যারা নারীদের কথা বলবেন, তাদেরকে ভোট দিব।
কৃষক লোকমান হোসেন বলেন, বর্তমান সরকার দেশের উন্নয়ন করছে। এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আমরা নৌকা প্রতিকে ভোট দিব।
আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোতাহার হোসেন মোল্লা বলেন, সরকার দলীয় প্রার্থী আমাকে প্রচার-প্রচারণায় বাঁধা দিচ্ছেন। আমি চাই সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরিবেশ। তাহলে বিজয় আসবেই, ইনশা-আল্লাহ।
আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী শাহীনুল আলম ছানা বলেন, বিগত দিনে উপজেলা চেয়ারম্যান এবং জনগনের সেবক হিসেবে সাধারণ মানুষের পাশে ছিলাম। সাধারণ মানুষের চাওয়া অনুযায়ী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী করেছেন। জনগণের রায় নিয়ে নিশ্চয়ই বিজয়ী হব।


বিদ্রোহী প্রার্থীর অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি আরও বলেন, মোতাহার হোসেন মোল্লা একজন দলছুট রাজনৈতিক। তিনি জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ায় এসব অভিযোগ করছেন।
এদিকে প্রচার-প্রচারণায় পিছিয়ে নেই ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও। এ উপজেলায় পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যাণ পদে ৪ জন প্রার্থী রয়েছেন। এরা হলেন, এসএম শাহেদ হোসেন সংগ্রাম, মীর মিজানুর রহমান, মোঃ সেলিম মোল্লা, শেখ ফারুক ইসলাম।
মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। এরা হলেন, ইলা বসু, খুরশিদা বেগম, গীতা রানী চিন্তাপাত্র, রুবিয়া বেগম এবং হীরা খানম।
মোল্লাহাট উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ৩৯টি কেন্দ্রে মোট ৯২ হাজার ৭‘শ ৬১ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে ৪৭ হাজার ৪৪৫ জন পুরুষ এবং ৪৫ হাজার ৩১৬ জন নারী ভোটার।