বাগেরহাটের চিতলমারীতে অপহরনের পর শিশু হত্যা, গ্রেফতার ৩

 

নিজস্ব প্রতিবেদক.

বাগেরহাটের চিতলমারীতে নিখোজের দুইদিন পরে খালিদ তালুকদার (৬) নামের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (১৭ জুন) বিকেলে উপজেলার চৌদ্দহাজারী গ্রামের সবুজ তালুকদারের মৎস্য ঘের থেকে ভাসমান অবস্থায় ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।এ ঘটনায় শিশু খালিদের পিতার করা অপহরণ মামলায় ৩জনকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ।

খালিদ তালুকদার চৌদ্দহাজারী গ্রামের মো. কাওছার আলী তালুকদারের ছোট ছেলে। কাওছার আলী তালুকদরা চিতলমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বঙ্গবন্ধু মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ।

পুলিশ জানায়, শনিবার (১৫ জুন)সন্ধ্যায় বাড়ির পাশের চৌদ্দহাজারী ঈদগাঁ মাঠে কয়েকজন শিশুর সাথে খেলা করছিল খালিদ তালুকদার। সেখান থেকে সে নিখোজ হয় খালিদ।পরে অনেক খোজাখুজি করে না পেয়ে রবিবার (১৬ জুন)খালিদের পিতা কাওছার তালুকদার বাদি হয়ে ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত ৫-৬জনকে আসামী করে থানায় একটি অপহরণ মামলা করেন। মামলায় এজাহার নামীয় চৌদ্দহাজারী গ্রামের বাদশা তালুকদার, কামরুল শেখ এবং মেরি বেগমকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ। অন্যদের আটকের চেস্টা চলছে বলে জানিয়েছেন চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অনুকুল সরকার।

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অনুকুল সরকার জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে চৌদ্দহাজারী গ্রামের একটি মৎস্য ঘের থেকে খালিদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।আইনী প্রক্রিয়া শেষে নিহতের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশের চেস্টা অব্যাহত রয়েছে।