শিশু খালিদ হত্যাকান্ডে জড়িতদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন-বিক্ষোভ মিছিল

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বাগেরহাটের চিতলমারীতে শিশু খালিদ তালুকদারের (৬) হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী। রবিবার বিকেলে উপজেলার বাখেরগঞ্জ বাজারে ঘন্টাব্যাপি এ মানববন্ধন কর্মসূচিতে নারী-পুরুষ শিশুসহ সর্বস্তরের সহ¯্রাধিক মানুষ অংশ নেয়। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, নিহত শিশু খালিদের পিতা চিতলমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বঙ্গবন্ধু মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ কাওছার আলী তালুকদার, মাতা বেবী নাজনীন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুর মোহাম্মাদ তালুকদার, স্থানীয় শামীম তালুকদার, শওকত আলী তালুকদার, চাঁদনী আক্তার, কামনা রাজবংশীসহ আরও অনেকে।

বক্তারা বলেন, শিশু খালিদের মূল হত্যাকারীদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে বিশেষ আদালতে বিচার করতে হবে। নৃসংশ ভাবে যারা খালিদকে হত্যা করেছে, তাদেরকে এমন শাস্তি দিতে হবে যাতে বাংলার মাটিতে আর কেউ হত্যা করার সাহস না পায় এবং কোন মা-বাবার কোল যাতে খালি না হয়। প্রশাসন যাতে দ্রুত আসামীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনে এ জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন এলাকাবাসী।
খালিদের পিতা চিতলমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বঙ্গবন্ধু মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ কাওছার আলী তালুকদার বলেন, এই খুনিরা প্রথমে আমাকে হত্যা করার জন্য আমার হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছে। এখনও আমি সুস্থ্য হয়ে হাটতে পারিনা। এরই মধ্যে আমার শিশু পুত্র খালিদকে অপহরণ করে নৃসংশভাবে হত্যা করে। খুনিদের ফাসির দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ জুন শনিবার সন্ধ্যায় বাড়ির পাশের চৌদ্দহাজারী ঈদগাঁ মাঠ থেকে শিশু খালিদ তালুকদারকে অপহরণ করে হত্যা করা হয়। পরে ১৭ জুন সোমবার বিকেলে ওই এলাকার সবুর তালুকদারের মৎস্য ঘের থেকে খালিদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় বাদশা তালুকদার, কামরুল শেখ এবং মেরি বেগমকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের রিমান্ডের আবেদন জানিয়েছে পুলিশ।#