বাগেরহাটে দস্যুতার ঘটনায় আটক ২, এলাকাবাসী উদ্বিগ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাগেরহাটের যাত্রাপুরে দুই বাড়িতে দস্যুতার ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে পরপর দুটি দস্যুতার ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে উদ্বেগ উৎকন্ঠা ছড়িয়ে পড়েছে। পুলিশ বলছে, অনাকাঙ্খিত দস্যুতার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। জড়িত থাকার অভিযোগে সন্দেহভাজন দুইজনকে আটক এবং অন্য অপরাধীদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় আনার জন্য পুলিশ চেষ্টা করছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মুখোশধারী ৪-৫জন লোক শুক্রবার সকালে যাত্রাপুর গ্রামের আবু নায়েবের ছোট ছেলে জাহিদুল কবিরের বাড়িতে ঢুকে কাজের মহিলাকে বেধে ফেলে। পরে ঘরে ঢুকে ঘরের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে স্বর্ণালংকার, নগদ টাকা, মূল্যবান জিনিসপত্রসহ মোট ৪ লক্ষ ১৮ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নেয় দস্যুরা। এ ঘটনায় জাহিদুল কবির বাদী হয়ে বাগেরহাট সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় আল আমিন মাতুব্বর মনির(৪৪) ও কবির মাঝি (৩২) নামের দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার রাতে যাত্রাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ নূর মোহাম্মাদের বাড়িতে একই ভাবে মুখোশধারী কয়েকজন লোক ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে পরিবারের লোকদের জিম্মি করে ৩টি মোবাইল, একটি মটর সাইকেল, একটি ল্যাপটপসহ মোট ৩ লক্ষ ৪০ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় সাবেক চেয়ারম্যান শেখ নূর মোহাম্মাদ বাদী হয়ে সোমবার দুপুরে বাগেরহাট সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

বাগেরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহতাব উদ্দিন বলেন, যাত্রপুরের দস্যুতার দুটি ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। একটি মামলায় সন্দেহভাজন দুইজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অন্য মামলায় অপরাধীদের সনাক্তে কাজ করছে পুলিশ।