বাগেরহাটে স্ত্রী হত্যা মামলায় স্বামীর মৃত্যুদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাগেরহাটে নিজ স্ত্রী সেলিমা বেগমকে হত্যার দায়ে স্বামী এবারত আলীকে মৃত্যুদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। রবিবার বিকেলে বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক এসএম সাইফুল ইসলাম আসামীর উপস্থিতে এই আদেশ দেন। একই সাথে আসামীকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানারও নির্দেশ দেন।

দন্ডপ্রাপ্ত হলেন, এবারত আলী বাগেরহাট সদর উপজেলার বিষ্ণুপুর গ্রামের মৃত. হাসেম শেখের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবীতে পারিবারিক কলহের জেরে  ২০০২ সালের ৯ ডিসেম্বর রাতে নিজ ঘরে স্ত্রী সেলিমা বেগমকে কয়েক দফা মারধর করে। এক পর্যায়ে ভোররাতে সেলিমা বেগম মারা যান। ওই দিন বিকালে নিহত সেলিমা বেগমের বাবা রুস্তুম আলী বাদি হয়ে বাগেরহাট মডেল থানায় এবারত আলীকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে পরের বছর ২০০৩ সালের ৭ এপ্রিল  নিহতের স্বামী এবারত আলীকে অভিযুক্ত করে তদন্তকারী কর্মকর্তা উত্তম কুমার বিশ্বাস আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। প্রায় ১৭ বছর পরে মামলায় স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহন শেষে আদালত এ রায় দেন।

এই মামলা পরিচালনা করেন সরকারের পক্ষে কৌশলী ছিলেন মোঃ ছিদ্দিকুর রহমান। তিনি বলেন, আদালতের এই রায়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এতে আমরা খুশি হয়েছি।