‘যুগান্তর পত্রিকা পাঠকের অন্তরজুড়ে’

রামপাল প্রতিনিধি. সত্যের সন্ধানে নির্ভীক দৈনিক যুগান্তরতাদের বস্তুনিষ্ঠ ও আপোষহীন সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে পাঠকের অন্তরজুড়ে জায়গা দখল করে নিয়েছে আঠারো কোটি মানুষের। পত্রিকাটি শুরু থেকেই সাদাকে সাদা আর কালোকে কালো নির্ভয়ে প্রকাশ করে চলেছে অবিচল। সাহস ও দক্ষতায় দেশে প্রথিতযশা লেখকদের লিখুনিতে পত্রিকাটি ব্যাপক জনপ্রিয় অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। পত্রিকাটি প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই প্রচারে শীর্ষে রয়েছে। দিনদিন আরো সমৃদ্ধির বহিঃপ্রকাশ করে যাচ্ছে সঠিক ও ন্যায় সংবাদ প্রচারের মাধ্যমে।একটি সোনার বাংলাদেশ বিনির্মানে যুগান্তরপত্রিকাটির ও বড় অবদান রয়েছে। প্রতিনিয়ত অসহায়, নির্যাতিত, অপরাধ,দুর্নীতির বিরুদ্ধে যে কথা বলে তার নামই যুগান্তর। একুশ মানে মাথা নত না করা, একুশ মানে এগিয়ে চলা শ্লোগানকে ধারণ করে আজ একুশ বছরে পদার্পণ করলো অনন্য এই যুগান্তরপত্রিকাটি। সাফল্যের হাতধরে যুগান্তরঅতিতের মত সৎ ও নিষ্ঠার সাথে সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে এগিয়ে চলুক দূর্বার গতিতে। দৈনিক যুগান্তর২১ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১ টায় বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার সুন্দরবন মহিলা কলেজ মিলনায়তনে স্বজন সমাবেশের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।
সুন্দরবন মহিলা কলেজের অধ্যাক্ষ ও যুগান্তরস্বজন সমাবেশের উপদেষ্টা শেখ খালিদ আহমেদের সভাপতিত্বে সুন্দরবন মহিলা কলেজের অধ্যাপক মোল্লা গোলাম ইয়াছিনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন রামপাল উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও স্বজন উপদেষ্টা শেখ মোয়াজ্জেম হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাগেরহাট ( রামপাল- মোংলা) সার্কেল এসপি আসিফ ইকবাল, রামপাল উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সুকান্ত কুমার পাল, দৈনিক যুগান্তররামপাল প্রতিনিধি ও স্বজন সমাবেশের প্রধান সমন্বয়কারি সুজন মজুমদার, সুন্দরবন মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ স্বজন উপদেষ্টা ইজারাদার নাহিদুল ইসলাম, স্বজন উপদেষ্টা ও অধ্যাপক হিরণ চন্দ্র দাশ, শিক্ষক প্রতিনিধি মো আব্দুল মুক্তাদির, প্রভাষক জান্নাতুল মাওয়া, হুড়কা ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি, স্বজন উপদেষ্টা তপন কুমার গোলদার,আনন্দ টিভির বিশেষ প্রতিনিধি মাহফুজুর রহমান, চুলকাঠি প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক সেকেন্দার মোড়ল, প্রেসক্লাব রামপালের সাধারণ সম্পাদক ও একাত্তর টিভির সাংবাদিক এইচ আমিনুল হক নান্টু, সাংবাদিক ও স্বজন সদস্য আরিফ ঢালী, রাহায়তুল জান্নাত, সোবাহান হোসাইন, পল্লি চিকিৎসক শেখ মারুফ বিল্লা জুয়েল, চন্দন বিশ্বাস প্রমূখ।

সকালে সুন্দরবন মহিলা কলেজ থেকে আনন্দ শোভাযাত্রাটি খুলনা-মোংলা মহাসড়ক প্রদক্ষিন করে কলেজ চত্বতে এসে শেষ হয় এবং অডিটোরিয়ামে কেক কাটার মাধ্যমে যুগান্তরপ্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রতিনিধির মুঠোফোনে বাগেরহাট জেলা পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় দৈনিক যুগান্তরপত্রিকার একুশ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সফলতা কামনা করেন এবং কর্মরত সাংবাদিকদের নীর্ভয় সঠিক ও সত্য সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে সমাজ তথা দেশ বিনির্মানে কার্যকরী ভুমিকা পালন করবে বলে দৃঢ প্রত্যাশা ব্যাক্ত করেন।