সাত বছর মৃত্যুর সাথে পাঞ্জালড়ে হেরে গেলেন বনদস্যুদের গুলিতে আহত নজির

এস.এস শোহান, বাগেরহাট. সাত বছর মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে পৃথিবী ছেড়ে বিদায় নিলেন সুন্দরবনের বনদস্যুদের গুলিতে আহত বাগেরহাটের নজির হাওলাদার।দীর্ঘদিন পঙ্গু জীবন যাপন করার পর খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার(২৭ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১১টায় মারা যায় নজির।বুধবার সকালে নিহতের মরদেহ বাড়িতে নিয়ে এসেছেন স্বজনরা।এর আগে রবিবার (২৫ অক্টোবর)অনেক অসুস্থ্য হয়ে পড়লে নজিরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় স্থানীয়রা।
নিহত নজির হাওলাদার শরণখোলা উপজেলার রায়েন্দা ইউনিয়নের উত্তর রাজাপুর গ্রামের সফিজ উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে। তিন সন্তানের জনক ৪০ বছর বয়সী নজির হাওলাদার সুন্দরবনে মাছ ধরে সংসার চলাতেন। সাত বছর আগে বনদস্যুদের গুলিতে সবকিছু স্থব্ধ হয়ে যায়। এরপর থেকে ভিক্ষা করেই চলত নজিরের সংসার।
নিহত নজিরের শ্যালক মনির বলেন, গুলি লাগার পর থেকে নজির ভাই হাটতে চলতে পারতেন না। হুইল চেয়ারে করে ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। রবিবার (২৫ অক্টোবর) হঠাৎ করে আরও বেশি অসুস্থ্য হয়ে পড়লে স্থানীয় জনপ্র্রতিনিধিদের সহায়তায় আমরা তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানে চিকিৎসাধীণ অবস্থায় মঙ্গলবার রাতে সে মারা যায়। নজিরের মরদেহ আমরা বাড়িতে নিয়ে এসেছি।