‘বাগেরহাটে পুলিশ সুপারের বিদায়ী সংবর্ধনায় আবেগে আপ্লুত অনুজরা’

নিজস্ব প্রতিবেদক. বাগেরহাট পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায়ের বদলিজনীত বিদায় উপলক্ষে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে থানার অধিকাংশ পুলিশ কর্মকর্তারা আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। দীর্ঘদিন আদর্শ একজন পুলিশ সুপারের নির্দেশে জনগণকে সেবা দিতে পেরে তারা নিজেদের গর্বিত মনে করেন। এসময় মডেল থানার ওসি তদন্ত পান্নু মিয়া ও উপ পরিদর্শক শেখ আসাদুজ্জামান বলেন, ৩৭ বছরের চাকরী জীবনে অনেক পুলিশ সুপারকে পেয়েছি, কিন্তু বাগেরহাট পুলিশ সুপার পংকজ স্যারের মত একজন আদর্শ অভিভাবক কখনো পাইনি। আজ বিদায়ী লগ্নে মনে হচ্ছে কি যেনো হারাচ্ছি। যে কোনো সময়, যে কোনো মুহূর্তে যে নির্দেশনা দিতেন তাই পালন করতে গিয়ে যদি কখনো ভুল ত্রুটি হতো তিনি রাগ না করে বুঝিয়ে বলতেন। সবস্তরের পুলিশ সদস্যদের নিয়মিত ভাল মন্দের খোঁজ খবর রাখতেন তিনি।

শনিবার ২০ (ফেব্রুয়ারী) বাগেরহাট মডেল থানা পুলিশের উদ্যেগে থানা চত্বরে আলোচনা সভা ও সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কে এম আজিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বাগেরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাব্বেরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, আইনজীবী সমিতির সভাপতি ড. এ কে আজাদ ফিরোজ টিপু, বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এড. মোজাফফর হোসেন, সাংবাদিক এড. শাহ আলম টুকু, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ষাটগম্বুজ ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আক্তারুজ্জামান বাচ্চু, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শওকত হোসেন, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিজিয়া পারভীন, মডেল থানার ওসি (তদন্ত) পান্নু মিয়া, উপ পুলিশ পরিদর্শক শেখ আসাদুজ্জামান, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ মনির হোসেন প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা পুলিশ সুপারের বাগেরহাটে কর্মকালীন সময়ের বিভিন্ন কর্মকান্ড তুলে ধরে তার ভূয়সী প্রশংসা করেন। পুলিশ বিভাগের কর্মকর্তারা উর্ধতন একজন যোগ্য অভিভাবককে বিদায় দিতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। এসময় পুলিশ সুপারের সুন্দর আগামী ও তার পরিবারের সদস্যদের দীর্ঘায়ু কামনা করেন।