বাগেরহাটে একদিনে আক্রন্ত ৪৩, দুই জনের মুত্য

নিজস্ব প্রতিবেদক. বাগেরহাটে করোনা সংক্রমনের হার বেড়েই চলছে। গেল ২৪ ঘন্টায় নতুন করে অন্তত ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে পাওয়া রিপোর্টে আক্রন্তদের মধ্যে মোংলা উপজেলায় দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রন্তদের মধ্যে মোংলা ২০ জন, মোরেলগঞ্জে ১৪ জন, বাগেরহাট সদর উপজেলায় ৭ জন, শরণখোলায় ২ জন রয়েছে। এই নিয়ে বাগেরহাট জেলায় মোট ১ হাজার ৭‘শ ২৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৪৬ জনের। বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে ১৫৪ জন। সুস্থ্য হয়েছেন প্রায় ১ হাজার ৪‘শ জন। এদিকে জেলার উর্দ্ধোমুখি সংক্রমনের হার বন্ধ করতে জরুরীসভা করেছে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত বাগেরহাট জেলা মনিটরিং কমিটি।

শুক্রবার (৪ জুন) বেলা ১১ টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায়, বাগেরহাটের পুলিশ সুপার কে এম আরিফুল হক, সিভিল সার্জন ডা. কে, এম, হুমায়ুন কবির, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক খোন্দকার মোহম্মদ রিজাউল করিম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. শাহিনুজ্জামান ও স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক দেব প্রসাদ পাল।

বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. কে, এম, হুমায়ুন কবির বলেণ, করোনা সংক্রামণ রোধে সরকারি বিধি নিষেধ বাস্তবায়নের জন্য কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। সচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি আইন প্রয়োগেরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়া গন পরিবহনে অর্ধেক যাত্রী নিশ্চিত করা, সচেতনতা বাড়াতে মাইকিং, লিফলেট, মাস্ক বিতরণসহ মসজিদ ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে প্রচারণা চালানো হবে। বাজারে স্বাস্থ্য বিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় নিশ্চিত করতে হেব। সকলকে মাস্ক পড়তে বাধ্য করা হবে। চায়ের দোকানে আড্ডা, টিভি দেখা ও ক্যারাম খেলা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান বলেন, সরকারি বিধি নিষেধ নিশ্চিত করতে আমাদের সর্বোচ্চ চেস্টা রয়েছে। এরপরেও কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান সরকারি বিধি নিষেধ অমান্য করলে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হবে।